রবিবার, ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৫

সিয়ামের নীল ঘুড়ি

গ্রীষ্মের ছুটিতে দাদার বাড়িতে বেড়াতে আসল সিয়াম। সে বিকেল বেলা মাঠের ধারে খেলা করতে গেল। তখন তার চোখের সামনে ভেসে উঠল নাটাই হাতে বিভিন্ন

শুক্রবার, ২৫ ডিসেম্বর, ২০১৫

পুতুলের বিয়ে

সুমি তার আব্বুকে বলছে, আব্বু আমি আমার পুতুলের বিয়ে দিব। 
সুমির বাবা বললো, তাই নাকি! কার পুতুলের সাথে?
- রিমার পুতুলের সাথে।
- এখন আমাকে কি করতে হবে?
- রিমার বান্ধবী সবাই বরযাত্রী নিয়ে আমাদের বাড়িতে বেড়াতে আসবে। তাদেরকে আয়োজন করে খাওয়াতে হবে।
- ঠিক আছে। তুমি আমার আদরের মেয়ে তোমার কথা কি ফেলতে পারি।

বৃহস্পতিবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০১৫

আনিকার কবুতর

সাড়ে তিন বছরের মেয়ে আনিকা। তার পুরো নাম আফরিন সুলতানা আনিকা।  আব্বু-আম্মু আদর করে ডাকে আনিকা। এই বয়সেই পোষা প্রাণীর প্রতি তার অনেক দরদ। এইতো কিছু দিন আগে আনিকার আব্বু তার নামে আকিকা দেয়ার জন্য একটি খাসী কিনে আনলেন। খাসী দেখে আনিকা খুব খুশি হয়। এই খাসী সে পালবে। কিছুতেই এই খাসী জবেহ করতে দিবে না। রাতে ঘুমানোর আগে আনিকা তার আব্বুকে বলছে, আব্বু আমার খাসী তুমি জবেহ করবে না। আমি তাকে জবেহ দিব না। যদি তুমি জবেহ কর তাহলে কিন্তু আমি খুব কান্না করব।

রবিবার, ২৯ নভেম্বর, ২০১৫

ফেরা

এক.
১৯৯৫ সাল।
শীতের সকাল। চারদিকে কুয়াশা। কুয়াশার জন্য দূরের লোকজন তেমন দেখা যায় না। এখনও সূর্য উঠেনি। জসিম উদ্দিন রেললাইনের পাশ দিয়ে হাঁটছেন। ডাক্তারের পরামর্শে প্রতিদিন ভোরে উঠে তিনি হাঁটেন। কিছুক্ষণ হাঁটার পর তার কাছে মনে হল কোথাও একজন কাঁদছে। কয়েক কদম যাওয়ার পর দেখলো আট-নয় বছরের একটি মেয়ে কাঁদতে কাঁদতে তার দিকে এগিয়ে আসছে। জসিম উদ্দিন যতই সামনে যাচ্ছে ততই মেয়েটি সামনে আসছে। মেয়েটি ইতোমধ্যে জসিম উদ্দিনের কাছাকাছি চলে আসলো। জসিম উদ্দিন কিছু জিজ্ঞেস করার আগেই মেয়েটি তাকে ঝাপটে ধরে বললো, আংকেল আমার আব্বু আমাকে রেখে চলে গেছে। আব্বুকে খুঁজে দেন। বলেই সে ফুঁপিয়ে কাঁদতে লাগলো। 

শুক্রবার, ১৩ নভেম্বর, ২০১৫

অনাথ শিশু

কনকনে এই শীতের মাঝে
হাড় কাঁপানো সকাল-সাঁঝে,
পাই না কারো একটু আদর
কে দেবে গো একটি চাদর?

সোমবার, ৯ নভেম্বর, ২০১৫

নালিশ


মনিষার বয়স এখন তিন বছর। সে এখন কথা বলতে পারে। খেলতে পারে। রাগ করতে পারে। বায়না ধরতে পারে। বিশেষ করে খাবার খাওয়ানোর সময় অনেক বায়না ধরে। কোন কিছুতেই ভুলিয়ে তাকে খাওয়ানো যায় না। তাকে খাবার খাওয়ানোর জন্য রীতিমত তার সাথে যুদ্ধ করতে হয়। তাকে খাবার খাওয়ানো যে কত কঠিন তা মনিষার মা ছাড়া আর কেউ বুঝবে না। কত রূপকথার গল্প ও মিথ্যার ভা-ার সাজিয়ে, ভয় দেখিয়ে তাকে খাওয়াতে হয় তা বলা মুশকিল। কখনো এক লোকমা মুখে দিলে এ রুম ছেড়ে অন্য রুমে চলে যায়। এ নিয়ে তার মাকে সারাক্ষণ তার পিছনে দৌঁড়াতে হয়।

শনিবার, ১০ অক্টোবর, ২০১৫

মুক্তি

সোহেল সাবিনাকে অনেক ভালোবেসেছিল। তারপরও সোহেল সাবিনাকে তার জীবন থেকে মুক্তি দিতে বাধ্য হয়েছিল। এছাড়া কি আর করার ছিল তার। সে সোহেলের জীবনটাকে তিলে তিলে শেষ করে ফেলেছে। ওকে নিয়ে সারাক্ষণ আতংকে থাকত সোহেল। কখন জানি কি অঘটন ঘটিয়ে ফেলে। সোহেল যতই চাচ্ছিল সাবিনার জীবন থেকে মুক্তি পেতে সাবিনা ততই তার ঘাড়ে চেপে বসেছে। তাইতো সোহেল নিরূপায় হয়ে আজ সাবিনাকে চিরজীবনের জন্য মুক্তি দিল। সে আর আসবে না কোন দিন সোহেলের জীবনে। 

মঙ্গলবার, ৬ অক্টোবর, ২০১৫

মর্জিনা বিবি

রাত আনুমানিক বারোটা। খালেদার চোখে ঘুম নেই। মনটা ছট ফট করছে। ইচ্ছে হল বাইরে বের হতে। রুম হতে বারান্দায় আসতেই দেখে কাজের মহিলা মর্জিনা বিবি বারান্দায় বসে আছে। তার চোখে পানি। খালেদা মর্জিনা বিবির দিকে এগিয়ে গেল। 
- আচ্ছা দিদি আপনি এখনও ঘুমান্নি! 

বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৫

লাল গরু

ঈদুল আজহার আর মাত্র এক সপ্তাহ বাকি। বড় ভাই কামাল উদ্দিনের মৃত্যুর পর জামাল উদ্দিন কোন ঈদে কোরবানি দিতে পারেনি। আজ থেকে পনের বছর পূর্বে সন্ত্রাসীদের হাতে নির্মমভাবে নিহত হন কামাল উদ্দিন। জামাল উদ্দিন ভাবছে এবার নিজের পোষা লাল গরুটা বিক্রি করে কোরবানিতে শরিক হবে।

ময়নার বিয়ে



- ময়নার মা! ও ময়নার মা।
স্বামী গফুর মিয়ার ডাকে তাড়াহুড়া করে ময়নার মা তার কাছে আসলো।
- কি হইছে? এত ছিল্লাচ্ছেন ক্যান?
- আরে হুন না। একটা সুখবর আছে?
- সুখবর! এই ভরদুপুরে আবার কি সুখবর নিয়ে আসলেন?

বৃহস্পতিবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৫

আয়না

রমনা পার্ক রাজধানী ঢাকার ঠিক মধ্যভাগে নগরের অক্সিজেন সরবরাহকারী হিসেবে নীরবে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। নানা প্রজাতির গাছ, কৃত্রিম হ্রদ এবং সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের কারণে পার্কটি নগরবাসীর এক প্রিয় ঠিকানায় পরিণত হয়েছে। এখানে আবাল-বৃদ্ধ-বনিতাসহ নানা শ্রেণী মানুষের আগমন ঘটে।
মুনিয়া ও শ্রাবণ নামের এক প্রেমিক যুগল রমনা পার্কের ভিতর প্রবেশ করল। তারা হাঁটতে হাঁটতে রমনা পার্কের কোন একটি জায়গায় এসে বেঞ্চের উপর বসল। কিছুক্ষণ পরই নয়/দশ বছরের একটি মেয়ে কতগুলো বকুল ফুলের মালা নিয়ে তাদের দিকে এগিয়ে আসল। মেয়েটির পরনে একটি ময়লা জামা ও একটি স্যালোয়ার। মেয়েটি অসহায় দৃষ্টিতে ডান হাতে একটি মালা নিয়ে শ্রাবণের সামনে ধরে বলল, সাব মালা নিবেন! মালা! বকুল ফুলের মালা। নেন না একটা মালা। দ্যাহেন কি সুন্দর ঘ্র্যান! আফারে খুব মানাইবো।

বৃহস্পতিবার, ২৭ আগস্ট, ২০১৫

বিবেক

রাত প্রায় ১২টা বাজে। বেলাল নাদিরাকে নিয়ে তার ব্যাচেলর বাসায় ঢুকেই দরজাটা লাগিয়ে দিল। এ দৃশ্য দেখে তখন নাদিরার হাত পা কাঁপা শুরু করে দিল। একি হচ্ছে! এ আমি কোথায় আসলাম? একজন মেয়ে হয়ে এত রাতে একজন ব্যাচেলর ছেলের বাসায়! তা হতে পারে না। আমাকে মিথ্যে বলে সে এখানে নিয়ে আসছে কেন? কি তার উদ্দেশ্যে?

বুধবার, ১২ আগস্ট, ২০১৫

জিনের আছর


রাত বারটা। 
চারদিকে নীরব নিস্তদ্ধতা। কোথাও কেউ নেই। এ মুহূর্তে গ্রামের কেউ এখন জেগে নেই। এমন সময় রুমা একা ঘর থেকে বের হলো প্রস্রাব করার জন্য। স্বামী শিহান গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন আছে। চারপাশ থেকে শিয়ালের হুক্কা হুয়া ডাক শুনা যাচ্ছে। রুমা যখন বাথরুমে গিয়ে বসল ঠিক তখনই উপর থেকে একটা খচখচ আওয়াজ হলো। রুমা ভয় পেয়ে দাঁড়িয়ে গেল।

কাশফুল


আকাশে শরতের সাদা মেঘ ভেসে বেড়াচ্ছে। খুব ইচ্ছে করছে শরতের সাদা মেঘগুলোর দিকে তাকিয়ে থাকি। কিন্তু আকাশের দিকে তাকাতে পারছি না। উপরে আকাশ নিচে নদী মাঝখানে আমি ও রফিক। তিতাস নদীর দুপাশে কাশফুল। খুব ভালই লাগছে। আমি আর রফিক কাশফুল দেখার উদ্দেশ্যে নৌকা ভ্রমণে বের হয়েছি সেই বিকাল বেলা। 

সম্পর্ক

- কিরে সাইফ কি করছিস? চল ঘুরে আসি। হঠাৎ বিকেল বেলা কাইফ সাইফের রুমে এসে হাজির।
- তুই এ সময়! কি মনে করে?
- কিছু মনে করে না। হঠাৎ তোর কথা মনে পড়ল তাই চলে আসলাম। ছাড়া অনেকদিন যাবত ভাবছি তোর সাথে একটা কথা শেয়ার করব?
- কি কথা?
- চল এখানে নয় অন্য কোথাও গিয়ে বলব।

ফাঁদ


আজ অফিস থেকে বের হতে শাহিনের অনেক দেরি হয়ে গেছে। সারাদিন তার উপর ধকল গেছে। তাছাড়া বাসার বাজার সদাই করতেও অনেক সময় ব্যয় হয়ে গেল। রাত আনুমানিক দশটা বাজে। মতিঝিল শাপলা চত্বরের পাশে রিক্সার জন্য দাঁড়িয়ে আছে শাহিন। কিছুক্ষণ পর একটি খালি রিক্সা আসল।  
- এই যাবেন ভাই?

মঙ্গলবার, ৪ আগস্ট, ২০১৫

পকেটমার



- এই যে ভাই ভাড়া দেন। 
কন্ট্রাক্টর ভাড়া চাইতেই প্যান্টের পকেটে হাত দিয়ে শক খেলাম। আমার মানিব্যাগ গায়েব হয়ে গেছে। পকেটে খুচরা টাকাসহ সব মিলিয়ে ৫০০/৬০০ টাকা ছিল। প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও ভোটার আইডিকার্ডসহ সবই পকেটমার নিয়ে গেছে, আমি টেরও পেলাম না।

বৃহস্পতিবার, ৩০ এপ্রিল, ২০১৫

হাসির বাক্স-১১



কৌতুক-৫১
ছেলে বাবাকে খুশি করার জন্য-
ছেলে: জানো বাবা, গতকাল না আমি রাত দুটো পর্যন্ত পড়াশোনা করেছি।
বাবা: মিথ্যে কথা বলছ কেন? গতকাল রাত তো বারটা থেকে লোডশেডিং ছিল।
ছেলে: ও তাই নাকি! আসলে আমি পড়াশোনায় এত নিবিষ্ট ছিলাম যে টেরই পাইনি।

মঙ্গলবার, ১৪ এপ্রিল, ২০১৫

বাঙালির সার্বজনীন উৎসব পহেলা বৈশাখ

পয়লা বৈশাখ বা পহেলা বৈশাখ বাংলা সনের প্রথম দিন, তথা বাংলা নববর্ষ। এ দিনটি বাংলাদেশ ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গে বাংলা নববর্ষ হিসেবে বিশেষ উৎসবের সাথে পালিত হয়। সে হিসেবে এটি বাঙালিদের একটি সার্বজনীন উৎসব। সারা বিশ্বে বাঙালিরা এ দিনটিকে নতুন বছর হিসেবে বরণ করে নেয়।

শুক্রবার, ২০ মার্চ, ২০১৫

তরুণ কবি আমির আসহাব ভাইয়ের জন্মদিনে শুভেচ্ছা


Amir Ashab
আজ ২০ই মার্চ তরুণ কবি আমাদের সবার কাছেই অতি প্রিয় সহব্লগার আমির আসহাব ভাইয়ের শুভ জন্মদিন। ইতিমধ্যে তিনি সুন্দর সুন্দর কবিতা পোষ্ট দিয়ে আমাদের মন জয় করেছেন এবং তাঁর লেখা চমৎকার কবিতা পাঠে আমরা অনেকেই তাঁর প্রিয় পাঠক হয়ে উঠেছি। এই স্বল্প সময়ে তাঁর গুণের কথা লিখে শেষ করা যাবে না। তিনি তাঁর নিজ গুণে আমাদের সকলের প্রিয় মুখে পরিণত হয়েছেন। তাছাড়া ব্লগের শুরু থেকেই এই গুণী তরুণ কবি সকল সহব্লগারদের সাথে আন্তরিকতাপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখে সুস্থ সুন্দর শালীন ব্লগিং করে আসছেন। আসুন আমরা তরুণ কবি সুপ্রিয় ‘আমির আসহাব’ ভাইকে তাঁর শুভ জন্মদিনে আমাদের প্রাণঢালা ফুলেল শুভেচ্ছা, অভিনন্দন জানাই।

রবিবার, ৮ মার্চ, ২০১৫

বেকার


এক
মা, মা তুমি কোথায়? ভাত দাওতো। এই কথা বলতে বলতে আদর খাবার রুমে ঢুকল।
আদরের মা চড়া গলায় বলল, কি হয়েছে? এত চিল্লাছিস কেন? নবাবজাদা সারাদিনতো টইটই করে ঘুরে বেড়াস আর ঘুম থেকে উঠস দিনের বারটায়। ঘুম থেকে উঠেই খাবারের জন্য চিল্লাপাল্লা শুরু করে দিস। বলি ভাত কোথা থেকে আসে? আর কত বেকার থাকবি? একটু কাজ কর্ম করে খাসনা।
মা, প্রতিদিন তোমার একই কথা আর ভাল লাগে না।

বৃহস্পতিবার, ৫ মার্চ, ২০১৫

প্রতিটি দিন হোক ভালোবাসা দিবস



ভালোবাসা পৃথিবীর সবচেয়ে দুর্লভ আর আকাঙ্খিত একটি আবেদন। পৃথিবীর সবচেয়ে মধুর কোমল দুরন্ত মানবিক অনুভূতি। ভালোবাসা শব্দটি খুব সহজেই সকলের সহজাত প্রবৃত্তির সাথে মিশে যায়। কেননা জন্মের পর থেকেই মানুষের বেড়ে উঠা এই ভালোবাসাকে কেন্দ্র করেই। ভালোবাসা না থাকলে কোন পরিবার থাকত না। ভালোবাসা নিয়ে ছড়িয়ে আছে অনেক পৌরাণিক উপাখ্যান। সাহিত্য-শিল্প-সংস্কৃতি সর্বত্রই

ফেসবুক প্রেম

মীম এবার এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছে। পরীক্ষা শেষ। এখন পড়ার কোন চাপ নেই। যথেষ্ট সময় এখন তার হাতে। মীম তার ছোট নাম। পুরো নাম তানিয়া সুলতানা মীম। মেয়ে এখন অনেক বড় হয়েছে। তাই বাবা তাকে একটি এনড্রুয়েড মোবাইল সেট কিনে দেয়।

শুক্রবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৫

হয়েছি আমি ধন্য

তোমার ভালোবাসা পেয়ে হয়েছি আমি ধন্য
তুমি শুধু আমারি জন্য।

তোমার জন্য


তুমি আমার মোমের আলো
তোমায় বাসতে চাই ভালো।

রহস্যময় পুকুর ও বটগাছ

  
জুনায়েদদের বাড়ীর পাশেই ছিল পুরানো একটি পুকুর। পুকুর পাড়েই ছিল বিশাল একটি বড় বট গাছ। বট গাছটির ডালপালা এতই বিশাল ছিল যে সবগুলো ডালপালাই পুকুরে গিয়ে পড়েছে। বট গাছের ডালপালার কারণে সূর্যের আলো কমই পড়ত পুকুরে। সারাদিনই অন্ধকারাচ্ছন্ন ভাব থাকতো এই পুকুরে ।

সংবাদপত্রের ভূমিকা, গুরুত্ব ও স্বাধীনতা




বর্তমান সভ্য ও নগর সমাজের অপরিহার্য সঙ্গী হচ্ছে সংবাদপত্র। গণমাধ্যমের প্রধান বাহন হিসেবে মানুষের মধ্যে এর গুরুত্ব, গ্রহণযোগ্যতা এবং জনপ্রিয়তা ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। সংবাদপত্রের গমন, বিচরণ এবং পরিধিও বাড়ছে। মানুষ যত শিক্ষিত এবং সচেতন হচ্ছে ততই সংবাদপত্রের ব্যবহার বাড়ছে। সংবাদপত্রের বিচরণ ক্ষেত্র ক্রমশ নগর থেকে শহর, শহর থেকে উপশহর, মফস্বল শহর এমনকি প্রত্যন্ত গ্রামে-গঞ্জেও ছড়িয়ে পড়ছে। সকালের সংবাদপত্র দুপুর, বিকেল, রাত এমনকি একদিন পরে গেলেও মানুষ আগ্রহ নিয়ে পড়ে। আমাদের বাংলাদেশের চেয়ে অন্যান্য দেশে সংবাদপত্র পড়ার জনসংখ্যার হার অনেক বেশী। সুতরাং বলা যায়, দৈনন্দিন জীবন ব্যবস্থার অবিচ্ছেদ্য অংশ হচ্ছে সংবাদপত্র। এটি গণমাধ্যমের মধ্যে সবচেয়ে বেশি শক্তিশালী বাহন।

এমন বাংলাদেশ কখনো চায়নি সাধারণ জনগণ


 
জনগণ মরছে গুলিতে, পেট্টোল বোমায়, আগুনে, দুর্ঘটনায়। তাদের শরীর আগুনে পুড়ে কয়লা হচ্ছে। সাধারণ জনগণ পড়েছে ভয়াবহ সংকটে। এত মৃত্যু, এত ধ্বংস, এত আগুন, এত হিংসা, এত জীবনহানী ও জীবিকার ওপরে এমন নিষ্ঠুর আঘাত স্বাধীনতার পর আর কখনো জনগণ দেখেনি। সমাজের সর্বস্তরের মানুষের দৈনন্দিন জীবনযাপন ব্যাহত হচ্ছে। কৃষি, শিল্প, ব্যবসা, শিক্ষা, চাকরি প্রতিটা ক্ষেত্রে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে সাধারণ মানুষ। এর কোন সমাধান দেখছে না জনগণ। এভাবে দেশ চলতে পারে না। এভাবে চলতে থাকলে দেশ কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে তা কল্পনা করা যায় না।

মঙ্গলবার, ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০১৫

তরুণ কবি সোহেল আহমেদ পরান ভাইয়ের জন্মদিনে শুভেচ্ছা


আজ ১০ই ফেব্রুয়ারি তরুণ কবি আমাদের সবার কাছেই অতি প্রিয় সহব্লগার সোহেল আহমেদ পরান ভাইয়ের এর শুভ জন্মদিন। ইতিমধ্যে তিনি সুন্দর সুন্দর কবিতা ও লিমেরিক পোষ্ট দিয়ে আমাদের মন জয় করেছেন এবং তাঁর লেখা চমকার কবিতা পাঠে আমরা অনেকেই তাঁর প্রিয় পাঠক হয়ে উঠেছি এই স্বল্প সময়ে তাঁর গুণের কথা লিখে শেষ করা যাবে না। তিনি তাঁর নিজ গুণে আমাদের সকলের প্রিয় মুখে পরিণত হয়েছেন। তাছাড়া ব্লগের শুরু থেকেই এই গুণী তরুণ কবি সকল সহব্লগারদের সাথে আন্তরিকতাপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখে সুস্থ সুন্দর শালীন ব্লগিং করে আসছেন। আসুন আমরা তরুণ কবি সুপ্রিয় 'সোহেল আহমেদ পরান' ভাইকে তাঁর শুভ জন্মদিনে আমাদের প্রাণঢালা ফুলেল শুভেচ্ছা, অভিনন্দন জানাই।

শুক্রবার, ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০১৫

পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত যেন এক নয়নাভিরাম দৃশ্য

01
[ছবিটি ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহ করা]

ছোট্ট এই বাংলাদেশে ভ্রমণের জায়গা খুব কম নয়। কক্সবাজার, সেন্টমার্টিন, কুয়াকাটা, সুন্দরবন, জাফলং, মাধবকুন্ড, লালবাগ কেল্লা ইত্যাদি খুব পরিচিত জায়গা ছাড়াও এখানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে অনেক ভ্রমণ জায়গা। আর এসব জায়গার দৃশ্যও অনেক মনোরম। যেমন কক্সবাজারের প্রতিটি সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত নতুন এবং সুন্দর। এজন্য কবি জীবনানন্দ দাশ বার বার এই বাংলায় ফিরে আসতে চেয়েছেন এবং ধবল বকদের ভীড়ে তাঁকে খুঁজতেও বলেছেন।

মঙ্গলবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৫

গ্রন্থ পর্যালোচনা “পিঁপড়ের পিছে পিঁপড়ে” আমির আসহাব


Cover
একুশের বই মেলা-২০১৪ তে সিদ্দিকীয়া পাবলিকেশন্স, ৩৮/৩ বাংলাবাজার (২য় তলা), ঢাকা থেকে প্রকাশিত হয় তরুণ কবি আমির আসহাব এর কাব্য গ্রন্থ “পিঁপড়ের পিছে পিঁপড়ে”। এই গ্রন্থে ৪২টি কবিতা স্থান পেয়েছে। গ্রন্থের প্রচছদ অলংকরণ করেছেন কাইয়ুম চৌধুরী। জন্ম অবধি যাদের কাছে ঋণী সেই শ্রদ্ধেয় পিতা-মাতা’কে উৎসর্গ করেই এই কাব্য গ্রন্থের যাত্রা শুরু হয়। উক্ত কাব্য গ্রন্থের কবিতাগুলো মনের গভীরে প্রোথিত অনুভূতিকে উদ্বেলিত করার মত গদ্য রীতিতে রচিত হয়েছে।

সোমবার, ২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৫

হাসির বাক্স-১০


কৌতুক-৪৬
বিখ্যাত এক শহর। সেই শহরের বিশাল এক দোকানে অনেক মূল্য হ্রাস ঘোষনা করলো। যে দিন সকাল থেকে মূল্যহ্রাস শুরু। তার আগের দিন রাত থেকেই দোকানের গেটে প্রচুর লোক লাইন ধরলো। সকাল ৮টার দিকে বিশাল দেহী এক লোক শিষ দিতে দিতে ভীড় ঠেলে দোকানের গেটের দিকে যাওয়ার চেষ্টা করলো। কিন্তু রাত থেকে লাইন দেওয়া লোকজন তার বিশাল দেহের তোয়াক্কা না করে সবাই মিলে ধাক্কা দিয়ে তাকে পেছনের দিকে ঠেলে

শনিবার, ৩১ জানুয়ারী, ২০১৫

হাসির বাক্স-৯



কৌতুক-৪১
এক ফকির আরেক ফকিরকে বলছে…
আজকে রাস্তায় ১০০ টাকা কুড়াইয়া পাইছিলাম!
১০০ টাকা দিয়া কি করলি?
ফালাইয়া দিছি!
কেন?
কথনো কি ১০০ টাকার নোটে তিনটা শুন্য দেখছশ?

বুধবার, ২৮ জানুয়ারী, ২০১৫

হারিয়ে যাচ্ছে টুনটুনি




টুনটুনি পাখিকে বলা হয় বাসা তৈরির কারিগরসূঁচের মত ধারালো ঠোট দিয়ে শৈলিক বুননে টুনটুনি তৈরি করে তার নিজের বাসা। ছোট্ট পাখি টুনটুনির দৃষ্টিনন্দন এই বাসা দেখে অবিশ্বাস্য মনে হলেও আসলে এর কারিগর কিন্তু টুনটুনিই। এখন আর আগের মত টুনটুনির বাসা চোখে পড়ে না। আগের আর টুনটুনি আমাদের আশে পাশে দেখতে পাই না। আগের মত টুনটুনির ডাক শোনা যায় না। বন, জঙ্গল, ঝোপ-ঝাড় কমে যাওয়ায় ক্রমশ কমে যাচ্ছে আমাদের অতিচেনা ছোট্ট পাখি টুনটুনি। টুনটুনিকে বিভিন্ন নামে ডাকা হয়। যেমন- নীল টুনটুনি, বেগুন টুনটুনি, মৌটুসকি, মধুচুষকি, দূর্গা টুনটুনি, মধু চমকি, মৌটুসি

শনিবার, ২৪ জানুয়ারী, ২০১৫

এই নৈরাজ্যের শেষ কোথায়?



এই নৈরাজ্যের শেষ কোথায়? আমরা কেউ জানিনা দেশ কোন দিকে যাচ্ছে। দিনের পর দিন ধ্বংস আর অচলাবস্থায় পড়ছে আমাদের এই সোনার বাংলা। রাজনৈতিক আগুনে পুড়ে ছাড়খার হয়ে যাচ্ছে এদেশ। মানুষের উদ্বেগ-উকণ্ঠা পৌঁছে গেছে

বৃহস্পতিবার, ১৫ জানুয়ারী, ২০১৫

স্বাধীনতার স্মৃতি বিজড়িত জাতীয় স্মৃতিসৌধে একদিন

1024px-JSS 
[ছবি: ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহ করা।]
মানুষের বিচিত্র রকমের শখ থাকে। কেউ বই পড়তে ভালোবাসে, কেউ খেলাধূলা করে সারাদিন কাটিয়ে দিতে ভালোবাসে আবার কেউ ঘুরে বেড়াতে ভালোবাসে। এতে তারা এক মূহূর্তের জন্য আনন্দ পায়। ভ্রমণ পিয়াসীরা  মুহূর্তের জন্য ঘরে বসে থাকতে চায় না। সময় সুযোগ পেলেই বেড়িয়ে পড়ে প্রকৃতিকে কাছ থেকে দেখার জন্য। সঙ্গে কিছু খাবার আর রাত কাটানোর জন্য তাবু হলেই হয়ে যায় ভ্রমণ। আমার সখ ভ্রমণ করা। ভ্রমণের দিনক্ষণ ঠিক হয়ে গেলেই আমার মন আনচান করতে থাকে কখন যাব সেখানে।

বুধবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০১৫

তরুণ কবি রুদ্র আমিন ভাইয়ের জন্মদিনে শুভেচ্ছা

10888472_1000318103330835_5735446391281035362_n
আজ ১৪ই জানুয়ারি তরুণ কবি আমাদের সবার কাছেই অতি প্রিয় সহব্লগার রুদ্র আমিন এর শুভ জন্মদিন। ইতিমধ্যে তিনি সুন্দর সুন্দর কবিতা পোষ্ট দিয়ে আমাদের মন জয় করেছেন এবং তাঁর লেখা চমৎকার কবিতা পাঠে আমরা অনেকেই তাঁর প্রিয় পাঠক হয়ে উঠেছি। এই স্বল্প সময়ে তাঁর গুণের কথা লিখে

সোমবার, ১২ জানুয়ারী, ২০১৫

বলতে পারি না


আমি ভুলতে চেয়েছি তোমাকে
কিন্তু ভুলতে পারি না,
কেন যে ভুলতে পারি না?
তাও বলতে পারি না।

হাসির বাক্স-৮



কৌতুক-৩৬
দিপু : চলতো টিপু চোখের ডাক্তারের কাছে যাই।
টিপু : কেন?
দিপু : আমি দূরের জিনিস দেখতে পাচ্ছি না।
টিপু : তোর চোখ তো একদম ঠিক আছে।
দিপু : (রাগান্বিত হয়ে) তুই কী করে বুঝলি?
টিপু : ওই যে সূর্যটা দেখতে পাচ্ছিস?
দিপু : হ্যাঁ পাচ্ছি!
টিপু : তাহলে আর কতো দূরের জিনিস দেখবি?

মঙ্গলবার, ৬ জানুয়ারী, ২০১৫

তরুণ কবি শাহ্ আলম শেখ শান্ত ভাইয়ের জন্মদিনে শুভেচ্ছা


10245365_1544674492436676_3640102176717385249_n
আজ ৫ই জানুয়ারি তরুণ কবি আমাদের সবার কাছেই অতি প্রিয় সহব্লগার আলম শাহ্ শেখ শান্ত এর শুভ জন্মদিন। ইতিমধ্যে তিনি সুন্দর সুন্দর কবিতা পোষ্ট দিয়ে আমাদের মন জয় করেছেন এবং তাঁর লেখা চমৎকার কবিতা পাঠে আমরা অনেকেই তাঁর প্রিয় পাঠক হয়ে উঠেছি। এই স্বল্প সময়ে তাঁর গুণের কথা লিখে শেষ করা যাবে না। তিনি তাঁর নিজ গুণে আমাদের সকলের প্রিয় মুখে পরিণত হয়েছেন। তাছাড়া ব্লগের শুরু থেকেই এই গুণী তরুণ কবি সকল সহব্লগারদের সাথে আন্তরিকতাপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখে সুস্থ সুন্দর শালীন ব্লগিং করে আসছেন। আসুন আমরা তরুণ কবি সুপ্রিয় ‘শাহ্ আলম শেখ শান্ত’ কে তাঁর শুভ জন্মদিনে আমাদের প্রাণঢালা ফুলেল শুভেচ্ছা, অভিনন্দন জানাই।

কবি ও গীতিকার নাসির আহমেদ কাবুল ভাইয়ের জন্মদিনে শুভেচ্ছা

54aa7993a480d
আজ ৬ই জানুয়ারি কবি ও গীতিকার আমাদের সবার কাছেই অতি প্রিয় সহব্লগার নাসির আমেদ কাবুল এর শুভ জন্মদিন। ইতিমধ্যে তিনি সুন্দর সুন্দর কবিতা পোষ্ট দিয়ে আমাদের মন জয় করেছেন এবং তাঁর লেখা চমৎকার কবিতা পাঠে আমরা অনেকেই তাঁর প্রিয় পাঠক হয়ে উঠেছি। এই স্বল্প সময়ে তাঁর গুণের কথা লিখে শেষ করা যাবে না। তিনি তাঁর নিজ গুণে আমাদের সকলের প্রিয় মুখে পরিণত হয়েছেন। তাছাড়া ব্লগের শুরু থেকেই এই গুণী লেখক সকল সহব্লগারদের সাথে আন্তরিকতাপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখে সুস্থ সুন্দর শালীন ব্লগিং করে আসছেন। আসুন আমরা কবি ও গীতিকার সুপ্রিয় ‘নাসির আহমেদ কাবুল’ কে তাঁর শুভজন্মদিনে আমাদের প্রাণঢালা ফুলেল শুভেচ্ছা, অভিনন্দন জানাই।

শুক্রবার, ২ জানুয়ারী, ২০১৫

বিরহের চিঠি

মনিরা! তুমি কেমন আছ?
আমার খুব জানতে ইচ্ছে করে।
কতদিন যাবত তোমার সাথে আমার

বৃহস্পতিবার, ১ জানুয়ারী, ২০১৫

ফটোব্লগার কামাল উদ্দিন ভাইয়ের জন্মদিনে শুভেচ্ছা


আজ ১ জানুয়ারি আমাদের সবার কাছে অতি প্রিয় ফটোব্লগার কামাল উদ্দিন এর শুভ জন্মদিন। ইতিমধ্যে তিনি সুন্দর সুন্দর ছবি পোষ্ট দিয়ে আমাদের মন জয় করেছেন এবং তাঁর তোলা চমকার ছবি দেখে আমরা অনেকেই তাঁর প্রিয় ভক্ত হয়ে উঠেছি এই স্বল্প সময়ে তাঁর গুণের কথা লিখে শেষ করা যাবে না। ইতিমধ্যেই তিনি তাঁর নিজ গুণে আমাদের সকলের প্রিয় মুখে পরিণত হয়েছেন।